বাজপাখির জন্য বিমান ভাড়া!

Print Friendly

ইতিহাদ, এমিরেটস কিংবা কাতার এয়ারওয়েজের বিমানের যাত্রীদের অনেকের কাছেই বিমানে বাজপাখি পরিবহনের দৃশ্য মোটামুটি সাধারণ ব্যাপার। তবে এর জন্য বৈধ কাগজপত্র থাকা চাই। আর প্রতিটা বাজপাখি বহনের জন্য দূরত্ব ভেদে গুনতে হয় উচ্চ ভাড়া। তবে সবকিছু ছাপিয়ে এবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ সোরগোল ফেলে দিয়েছে সৌদি আরবের এক যুবরাজের বিমান ভাড়া করে বাজপাখি বহনের ঘটনা। পরিচয় প্রকাশ না হওয়া ঐ সৌদি যুবরাজ ৮০টি বাজপাখির জন্য গোটা বিমান ভাড়া করেছিলেন। জেদ্দা বিমানবন্দর থেকে ছেড়ে যাওয়া ঐ বিমানের মূল যাত্রী বলা যায় বাজপাখিগুলো। বিমানের আসনে বসানো প্রতিটা বাজপাখির ডানা দড়ি দিয়ে বাঁধা ছিল; যাতে বিমানের ভেতরে উড়তে না পারে। বিমানের ইকোনোমি ক্লাসে করে বাজপাখি বহনের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর এই নিয়ে তুমুল বিতর্ক শুরু হয়ে গেছে। ল্যান্সো নামের এক রেডিট ব্যবহারকারীর একাউন্ট থেকে ছবিগুলো প্রকাশ করা হয়। ল্যান্সো জানান, তার এক ক্যাপ্টেন বন্ধু তাকে ছবিগুলো পাঠিয়ে ছিল। সংযুক্ত আরব আমিরাতের অন্যতম প্রতীক বাজপাখি। এ কারণে দেশটির পরিবেশ অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে ২০০২ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত ২৮ হাজার পাসপোর্ট ইস্যু করা হয়েছে। তবে সৌদি যুবরাজের এই বাজপাখিগুলোর কোনো পাসপোর্ট ছিল কিনা তা জানা যায়নি।-হাফিংটন পোস্ট