যাত্রাবাড়ীতে ‘জঙ্গি আস্তানায়’ র‌্যাবের অভিযান : আটক ৪

Print Friendly

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর একটি ‘জঙ্গি আস্তানায়’ অভিযান চালিয়ে ৪ জনকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। আজ বুধবার ভোরে এই অভিযান চালানো হয়।
আটককৃতরা নব্য জেএমবির সারোয়ার-তামিম গ্রুপের সদস্য। তাদের মধ্যে গ্রুপটির আইটি শাখার প্রধানও রয়েছেন।
আটক ৪ জন হলেন- আশফাক-ই-আজম ওরফে আপেল, মাহবুবুর রহমান, শাহিনুজ্জামান ও আশরাফুল ইসলাম।
অভিযানে অস্ত্র গুলি ও বিস্ফোরক তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে দুটি নাইন এমএম পিস্তল, ২১ রাউন্ড গুলি, দুটি চাপাতি, দুটি ছুরি, গান পাউডার ও বোমা তৈরির বিভিন্ন উপকরণ রয়েছে।
র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের উপ-পরিচালক মেজর হোসেন রইসুল আজম মনি জানান, আটকরা সবাই জেএমবির সারোয়ার তামিম গ্রুপের সদস্য। এদের মধ্েয আশফাক-ই-আজম ওই দলের ‘আইটি এক্সপার্ট। জঙ্গিদের বিভিন্ন ওয়েবসাইট পরিচালনা ও ‘টেকনিক্যাল সাপোর্ট’ দেয়ার দায়িত্ব ছিল তার ওপর।
যাত্রাবাড়ীতে ‘জঙ্গি আস্তানায়’ র‌্যাবের অভিযান : আটক ৪
র‌্যাব-১০ এর অধিনায়ক জাহাঙ্গীর হোসেন মাতুব্বর জাহাঙ্গীর জানান, কবিরাজবাগের পাঁচতলা ওই ভবনের দ্বিতীয় তলায় দুই কক্ষের একটি বাসা ভাড়া নিয়ে জঙ্গিরা সেখানে আস্তানা গড়ে তুলেছিল। নির্মাণ শ্রমিক পরিচয় দিয়ে গত ২৩ জানুয়ারি তারা ওই বাসা ভাড়া নেয়। বাড়ির মালিক একজন নারী। বাসা ভাড়া নেয়ার সময় তাকে তারা বলেছে, আগে গুলশানের একটি নির্মাণ সাইটে কাজ করত তারা। ওই কাজ শেষ হয়ে যাওয়ায় যাত্রাবাড়ীতে আরেকটি সাইটে কাজ নিয়েছে। সে জন্যই এখানে বাসা ভাড়া করছে। বাড়িওয়ালী ভোটার আইডি আর ছবি চাওয়ায় বলেছিল, ১ তারিখ সব দিয়ে দেবে।
তিনি আরো বলেন, তাদের নাশকতা ঘটানোর পরিকল্পনা ছিল বলে আমরা প্রাথমিকভাবে মনে করছি। জিজ্ঞাসাবাদ করার সুযোগ পেলে তাদের সেই পরিকল্পনা আমরা জানার চেষ্টা করব।
র‌্যাব কর্মকর্তারা বলছেন, একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আইটি বিষয়ে পড়ালেখা করার পর বছর পাঁচেক আগে জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়েন আশফাক। আর তার সঙ্গে আটক হওয়া শাহিনুজ্জামান অস্ত্র চালনায় দক্ষ।