বরগুনায় হত্যা মামলায় ৪ জনের ফাঁসি

Print Friendly

বরগুনায় এক ব্যবসায়ী হত্যা মামলায় চারজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই মামলায় আরও দুইজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। বরগুনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মুহাম্মদ আবু তাহের বুধবার সব আসামির উপস্থিতিতে রায় ঘোষণা করেন।

সর্বোচ্চ সাজার পাশাপাশি প্রত্যেক আসামিকে অন্য একটি ধারায় তিন বছর করে সশ্রম কারাদণ্ডসহ এক লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আক্তারুজ্জামান বাহাদুর বলেন, ২০১২ সালের ১০ এপ্রিল জেলার আমতলী উপজেলার চলাভাঙ্গা গ্রামের গরু ব্যবসায়ী নয়া মিয়া ৭০ হাজার টাকা নিয়ে কলাপাড়া থেকে বাড়ি ফিরছিলেন।

তিনি বলেন, ‘পথে তাকে শহিদুল চৌকিদারের বাড়ি নিয়ে পাটা-পুতা দিয়ে কোমরের নিচের দিকের অংশ থেঁতলে দেয় আসামিরা। খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন চৌকিদারের বাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার করে আমতলী স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।’

এ ঘটনায় নয়া মিয়ার ছেলে মো. নাসির বাদী হয়ে ছয়জনকে আসামি করে আমতলী থানায় হত্যা মামলা করেন বলে জানান আইনজীবী।

ছয় আসামির মধ্যে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত চারজন হলেন শহিদুল ইসলাম চৌকিদার, বারেক চৌকিদার, বশির মাতুব্বর ও মোয়াজ্জেম। যাবজ্জীবন পাওয়া দুইজন হলেন আবদুর রব চৌকিদার ও মজিবর।

আইনজীবী আক্তারুজ্জামান বলেন, ১৯ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ ও যুক্তিতর্ক শেষে বিচারক মুহাম্মদ আবু তাহের রায় ঘোষণা করেন।

মামলার বাদী মো. নাসির উদ্দিন বলেন, ‘আমার বাবাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। আদালতের রায়ে আমরা সবাই খুশি’। আসামিদের ফাঁসির রায় দ্রুত কার্যকর করার দাবি জানান তিনি।

আসামিপক্ষের আইনজীবী কমল কান্তি দাস বলেন, ‘এ রায়ে আমরা সন্তুষ্ট নই। আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করব।’