মে মাসে স্মার্টকার্ড পাবে জেলা সদর ও পৌরসভার মানুষ

Print Friendly

চলতি বছরের মধ্যে দেশের ৯ কোটি নাগরিকের হাতে স্মার্টকার্ড পৌঁছে দেওয়ার বিষয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মোহাম্মদ আবদুল্লাহ। আজ রবিবার সকালে আগারগাঁওয়ে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে সচিব এ সংশয় প্রকাশ করেন।

তিনি জানান, এ বছরের এপ্রিলে রাজশাহী ও খুলনা মহানগরী এলাকায় এবং মে মাসে জেলা সদর ও পৌরসভায় স্মার্টকার্ড বিতরণের পরিকল্পনা রয়েছে।

এসময় ইসি সচিব বলেন, ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ৯ কোটি ভোটারের মধ্যে স্মার্টকার্ড বিতরণ সম্পন্ন করার কথা রয়েছে। আমরা ৩০ জুলাইয়ের মধ্যে সব কার্ড পেয়ে যাবো। কিন্তু কার্ডে পারসোনালাইজেশন বা তথ্য সমৃদ্ধ করছি তাতে হয়তো আমরা ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ৯ কোটি ভোটারের হাতে স্মার্টকার্ড পৌঁছে দিতে পারবো না। আমরা যেভাবে কাজ করছি তাতে হয়তো আরো কিছু সময় লাগবে। এটা হয়তো এপ্রিল-মে পর্যন্ত চলে যেতে পারে।

স্মার্টকার্ড বিতরণে জনভোগান্তির বিষয়ে সচিব বলেন, শতকরা একভাগ লোক কার্ড পেতে বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন। এটা খুব বড় বিষয় নয়। আপাতত ডাটাবেজে যেসব ভোটারের তথ্যে অসম্পূর্ণতা রয়েছে তাদের ক্ষেত্রে এ রকম হচ্ছে। এ সমস্যার সমাধান এখনই সম্ভব নয়। এটা আস্তে আস্তে ঠিক হয়ে যাবে।

আগামীকাল সোমবার চট্টগ্রামের দুইটি থানায় স্মার্কার্ড বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করা হবে জানিয়ে ইসি সচিব বলেন, চট্টগ্রাম জেলায় মোট ৫০ লাখ ভোটার আছেন। এর মধ্যে মহানগরী এলাকার ভোটার সংখ্যা ১৮ লাখ। ১৬ মার্চ থেকে সেন্টার থেকে ভোটারদের মধ্যে স্মার্টকার্ড বিতরণ শুরু হবে। প্রথম পর্যায়ে বিতরণের জন্য আমাদের হাতে রয়েছে ১১ লাখ ৭৬ হাজার স্মার্টকার্ড। এছাড়া এপ্রিল থেকে রাজশাহী ও খুলনা মহানগরী এলাকাতেও স্মার্টকার্ড বিতরণ কার্যক্রম শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে। মে’তে জেলা সদর ও পৌরসভায় স্মার্টকার্ড বিতরণের পরিকল্পনা রয়েছে। এরপর আমরা উপজেলা পর্যায়ে স্মার্টকার্ড বিতরণ করবো।

তিনি জানান, স্মার্টকার্ড বিতরণের সবগুলো সেন্টারেই এখন সিনিয়র সিটিজেন ও শারীরিকভাবে অক্ষমদের জন্য আলাদা কিউ আছে। চট্টগ্রামের কার্ড বিতরণের প্রথম দিন থেকেই এ ব্যবস্থা থাকছে।

তিনি আরো বলেন, ২০১১ সালে যারা ভোটার হয়েছেন তাদের লেমিনেটেড কার্ডে কোনো ভুল থাকলে তারা তা সংশোধন করে নিতে পারেন। ‍এটা ডিজি এনআইডি বিজ্ঞপ্তিও দিয়েছিলেন। এছাড়া আমরা যখন মফস্বলে স্মার্টকার্ড দিতে যাবো তখন যেসব এলাকায় স্মার্টকার্ড দেওয়া হবে তারা আগে থেকেই কোনো ভুল থাকলে তা ঠিক করে নিতে পারবেন।