গণপরিবহনহীন রাজধানীতে জনদুর্ভোগ চরমে

Print Friendly

বাসচালকের মৃত্যুদণ্ড ও যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশের প্রতিবাদে সারাদেশে চলমান অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘটে জিম্মি হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে রাজধানীতে বসবাসকারী কর্মজীবীদের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে। বুধবার সকাল থেকে নগরীর কোনো রাস্তায় গণপরিবহন চলতে দেখা যায়নি। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন অফিসগামী সাধারণ মানুষসহ শিক্ষার্থীরা।

আজ সকাল থেকে বাস নেই বললেই চলে। পিকআপ, প্রাইভেটকার, টেম্পো, সিএনজিচালিত স্কুটার আর রিকশা চলছে কেবল। তা-ও সীমিত আকারে।

রাজধানীর শ্যামলী এলাকায় অফিসগামী মানিক মিয়া বলেন, আমি সকালে বাসা থেকে বের হয়েছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো বাস পাচ্ছি না। আবার দূরের রাস্তা হওয়ায় আমাদের মতো সাধারণ মানুষের পক্ষে এত ভাড়া দিয়ে রিকশাও যাওয়া সম্ভব নয়। সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে এমন অযৌক্তিক ধর্মঘট মেনে নেয়া যায় না।

সড়ক দুর্ঘটনায় চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব তারেক মাসুদ ও সাংবাদিক মিশুক মুনীরসহ পাঁচজনের প্রাণহানির মামলায় ঘাতক বাসের চালক জামির হোসেনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত। গত ২২ ফেব্রুয়ারি দেওয়া এই রায়ের প্রতিবাদে প্রথমে আঞ্চলিকভাবে পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়। এদিকে সাভারে ট্রাকচাপায় এক নারীকে হত্যার দায়ে চালকের বিরুদ্ধে সোমবার মৃত্যুদণ্ডের রায় দেন আদালত। এরপরই গতকাল থেকে সারাদেশে ধর্মঘট আহ্বান করা হয়।