সিলেটের ওসমানীনগরে নির্বাচনী সংঘর্ষে এক তরুণ নিহত

Print Friendly

সিলেটের ওসমানীনগরে নির্বাচনী সংঘর্ষে সাইফুল ইসলাম (১৭) নামে এক তরুণ নিহত হয়েছে। নিহত সাইফুল জগন্নাথপুর উপজেলার উত্তর কালনীচর গ্রামের মৃত শরফ উদ্দিনের ছেলে। এ ঘটনায় ১৮ জন গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছেন উভয়পক্ষের অন্তত পঞ্চাশ জন মানুষ। আহতদের পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে আহতদের।
আজ রবিবার দুপুরে নবগঠিত ওসমানীনগর উপজেলার সাদীপুর ইউনিয়নের বাংলাবাজার হাতানিপাড়ায় এ সংঘর্ষ হয়।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গতকাল শনিবার বিকেলে ওসমানীনগর উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দফতর সম্পাদক আক্তারুজ্জামান চৌধুরী ওরফে জগলু চৌধুরীকে নিয়ে সাদীপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা কবির উদ্দিন, আরজু মেম্বার, তার ভাই বাহার মিয়াসহ বেশ কিছু সমর্থক সাদীপুর বাংলাবাজারে গণসংযোগে যান।
গণসংযোগকালে একটি চা স্টলে জগন্নাথপুর উপজেলার উত্তর কালনীচরের আল-আমিনসহ ৬ যুবক নাস্তা করছিলেন। এসময় জগলু চৌধুরীর সমর্থক বাহার মিয়া ও কবির উদ্দিন তাদের জগলু চৌধুরীর পক্ষে কাজ করতে বলেন। আল আমিনসহ ৬ যুবক সে বিষয়ে অপারগতা জানালে উভয়পক্ষের মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়।
বিষয়টি সাময়িকভাবে শেষ হলেও আজ রবিবার সকালে বিষয়টি সালিসের মাধ্যমে সমাধান হবার কথা ছিল। কিন্তু সকাল ১০টার দিকে বাহার মিয়ার পক্ষের লোকজন উত্তর কালনীচরের আল-আমিন ও তার পক্ষের লোকজনের ওপর আগ্নেয়াস্ত্রসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এসময় দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় সাইফুল।