আইএসের দখলমুক্ত করতে মসুলের পশ্চিমাঞ্চলে ইরাকি বাহিনীর অভিযান

Print Friendly

ইসলামিক স্টেট জঙ্গিগোষ্ঠীর দখলে থাকা ইরাকের মসুল শহরের পশ্চিমাঞ্চল পুনরুদ্ধারের জন্য ইরাকি সরকারি বাহিনী বড় ধরনের অভিযান শুরু করেছে।
রবিবার সকালের দিকে কয়েকশো সামরিক যান এবং হাজার হাজার ইরাকি সেনা, পুলিশ, স্বেচ্ছাসেবী এবং শিয়া ও কুর্দি সশস্ত্র যোদ্ধারা এই অভিযানে অভিযান শুরু করেন।
ঊর্ধ্বতন এক কমান্ডার জানিয়েছেন, অভিযানের শুরুতে শহরের দক্ষিণ দিকের দুটো গ্রাম দখলে নিয়ে নিয়েছে ইরাকি সেনারা।
ইরাকের প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল আবাদি আনুষ্ঠানিকভাবে আইএসবিরোধী অভিযানের ঘোষণা দেন।
সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট জেনারেল আবদুলামির ইয়ারাল্লাহ এক বিবৃতিতে জানান, মসুল বিমানবন্দরের কাছে ‘আতবাহ’ ও ‘আল-লাজ্জাগাহ’ নামে দুটো গ্রাম দখলে নিয়ে নিয়েছে সেনাবাহিনীর একটি ইউনিট।
গত মাসে ইরাকি যোদ্ধারা ইসলামিক স্টেট জঙ্গিদের কাছ থেকে মসুলের পূর্বাঞ্চল মুক্ত করেন।
তবে সেনা কর্মকর্তারা ধারণা করছেন, মসুলের পশ্চিমের সরুগলিতে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে পারেন যোদ্ধারা। তবে পশ্চিমাঞ্চল উদ্ধার করাটাই বড় চ্যালেঞ্জ হবে বলে মনে করছেন কর্মকর্তারা।
অন্যদিকে জাতিসংঘ সতর্ক করে দিয়ে বলছে, পশ্চিম মসুলে প্রায় সাড়ে ছয় লাখ মানুষ আটকা পড়ে আছেন। আটকা পড়া হাজার হাজার মানুষের নিরাপত্তার বিষয় যেন সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেয়া হয়-এই সতর্কবার্তাও দিয়েছে জাতিসংঘ।
বার্তা সংস্থা এএফপি জানাচ্ছে, টেলিভিশন বার্তায় অভিযানের ঘোষণা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল আবাদি বলেছেন, “আমরা অভিযানের নতুন ধাপ শুরু করতে যাচ্ছি।আমরা মসুল স্বাধীন করতে আসছি। আপনার আতঙ্কিত হবেন না। আইএসের সন্ত্রাসের হাত থেকে আমাদের নাগরিকদের মুক্ত করতে আমাদের বাহিনী অভিযান চালাচ্ছে”।
ইরাকি বাহিনী এখন মসুল ঘিরে রেখেছে।
আর আইএসকে লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালাচ্ছে মার্কিন নেতৃত্বাধীন যৌথ বাহিনী।