টাওয়ার বিক্রি করবে বাংলালিংক

Print Friendly

মোবাইল ফোন অপারেটর বাংলালিংক সব টাওয়ার বিক্রি করে দেবে।বাংলালিংকের মূল কোম্পানি ভিম্পেলকম টেলিটকম সেবা দিতে গিয়ে টাওয়ারের ব্যবস্থাপনার বোঝা আর নিজেদের কাঁধে রাখতে চায় না। ইতোমধ্যে সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে তারা প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে। যার প্রথম ধাপে টাওয়ারের ব্যবস্থাপনার জন্যে একটি সাবসিডিয়ারি কোম্পানি গঠন করার কাজ শুরু করেছে তারা। সম্প্রতি বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসিতে এ বিষয়ে আবেদন করে অনুমতি চেয়েছে গ্রাহক সংখ্যায় তৃতীয় অপারেটর বাংলালিংক।

তবে দুই দিনের ঢাকায় সফরে আসা ভিম্পেলকমের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জেন-ইভস চার্লিয়ার বিষয়টি আরও দ্রুততার সঙ্গে করতে বলেছেন। সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেনে, তাদের মনেযোগ এখন কেবল টেলিকম সেবায়। টাওয়ারের ব্যবস্থাপনা সেখানে অহেতুক ঝামেলা হয়ে থাকছে।

সে জন্যই তারা বাংলালিংকের হাতে থাকা প্রায় নয় হাজার টাওয়ারের সব বিক্রি করে দিতে চায়। এসব টাওয়ার বিক্রি করে দিয়ে সেগুলো আবার ভাড়া নিয়ে ব্যবহারের পরিকল্পনা করছে বাংলালিংক বা ভিম্পেলকম। চার্লিয়ার বলছেন, টাওয়ার বিক্রি করে যে টাকা পাওয়া যাবে সেটাই বরং তারা টেলিকম সেবার জন্যে ব্যবহার করতে পারবেন। তাদের নেটওয়ার্ক এবং গ্রাহক পর্যায়ে সেবার মান বাড়বে।

এদিকে সরকারও টাওয়ার কোম্পানির জন্য আলাদা লাইসেন্স দেওয়ার পরিকল্পনা করছে। এ বিষয়ে একটি নীতিমালা হয়েছে, যেখানে বলা হয়েছে দুটি টাওয়ার কোম্পানির লাইসেন্স দেওয়া হবে যেখানে মোবাইল ফোন অপারেটরের নেটওয়ার্ক সংক্রান্ত সেবা পাওয়া যাবে। একই সঙ্গে মোবাইল ফোন অপারেটররা আর নতুন করে কোনো টাওয়ার স্থাপন করতে পারবে না। তাছাড়া চাইলে অপরেটররা তাদের টাওয়ার এই কোম্পানির কাছে বিক্রিও করতে পারবে।

এই নীতিমালা অনুসারেই টাওয়ার বিক্রি করে দিতে চায় বাংলালিংক। আর সে জন্যই কাজ এগিয়ে রাখতে সাবসিডিয়ারি কোম্পানি করতে চাইছে তারা। যেখানে নিজেদের আওতাধীন টাওয়ার দেখভাল ও এখন পর্যন্ত বিনিয়োগ করা সম্পদ নিয়ে এ সহযোগী কোম্পানি গঠন করা হবে।